police

পুলিশকে নিয়ে সুখকর স্মৃতি আছে এমন লোক দেশে বিরল।

তবে আমার একটা সুখের স্মৃতি আছে....

গত কোরবানীর ঈদের আগে মিরপুর ১৪ থানায় গেলাম এক কাজে ঈদের আগ মুহুর্ত বিকাল বেলায় বেশির ভাগ পুলিশই বোধ হয় বাইরে ডিউটিতে, থানা মোটামোটি পুলিশ শূন্য।

ডিউটিতে থাকা এক মহা ব্যাস্ত এসআইকে (নাম মনে নাই) সমস্যা বললাম উনি পাশের জন কে কম্পিউটার কম্পোজ করা নির্দেশ দিলে সে বলল বাইরে টহলে যেতে হবে এখনি।

আশেপাশে আর কেউ না থাকায়, এসআই আমাকে বসায়ে রেখে আমার আগের দুইজনকে কাজ শেষে বিদায় করে আমার টা শুরু করলেন। ব্যাস্ততার মাঝেও কাজটা যথেষ্ট আন্তরিক ভাবেই করলেন। সব মিলিয়ে দুই-আড়াই ঘন্টা লাগল। তিনি চাইলে আমাকে আইনের বিভিন্ন ধারা অনুচ্ছেদ দেখিয়ে ৪-৫ দিন ঘুরিয়ে হাজার খানেক টাকা খরচ করাতে পারতেন। তিনি সেটা না বরং আমাকে বসিয়ে রাখার জন্য দুঃখ প্রকাশ করলেন যদিও নিজেই দেখতে পাচ্ছি তিনি প্রচন্ড ব্যাস্ত।

কোন রকম হয়রানি না করে দ্রুত কাজ শেষ করায় ভাবলাম তাকে কৃতজ্ঞতা সরুপ কিছু ইয়ে.. ইয়ে মানে স্পীড মানি দেওয়া আমার কর্তব্য যদিও এর জন্য কোন সরকারী ফি লাগে না।

সরাসরি বলা ঠিক হবে ভেবে তাকে আকার ইঙ্গিতে টাকা পয়সার বিষয়টি বুঝাইলাম। এসআই সাহেব দেখি বুঝেও না বুঝার ভান করলেন। আমি অবাক হলাম। তখনি খেয়াল হল রুমটি সিসি ক্যামেরার আওতাভূক্ত। তাই বিদায় নিয়ে বাইরে এসে চারপাশে তাকিয়ে দেখলাম এখানে কোন ক্যামেরা নাই। এসআইকে যথেষ্ট ভদ্র মনে হওয়ায় মনে খুলে ডাক দিলাম বাইরে আসার জন্য। 

তিনি বাইের আসলেন। তার প্রশংসা করে নির্ভয়ে বললাম স্পীড মানি দিতে চাই। তিনি বললেন এর জন্য কোন চার্জ নেই। কোন রকম আগ্রহ না দেখে এবার একটু জোর করলাম....... হা হা হা... মুখের দিকে তাকায়া বুঝতে পারলাম ঘুষ অফার করায় তিনি কিছুটা লজ্জা পাইছেন যদিও আশেপাশে আর কেউ ছিল না।

দেশের সর্বত্র এই লজ্জাটাই খুব বিরল যা খুবই প্রয়োজন।

সরকারী অফিসে ঘুষ সংশ্লিষ্ট ব্যাপারে এই বিরল সুখকর স্মৃতি বিগত জীবনে কোন দিন অনুভব করি নাই। পুলিশের ক্ষেত্রে এমন হতে পারে তা বোধ হয় কেউ কল্পনাও করতে পারে না। তাই পুলিশের সাথে আমার এটি একটি বিরল সুখের স্মৃতি হিসেবেই থাকবে।

লেখক পরিচিতি
এম, এইচ, মিনহাজ
আমি বিভিন্ন বাংলা/ইংরেজী ব্লগের একজন অনিয়মিত এবং সখের ব্লগার। তবে নিয়মিত লেখার ইচ্ছে থাকলেও অনিয়মিত ভাবেই পাঠকদের বিরক্ত করে থাকি। আমার লেখার বিষয়বস্তু- যা মনে আসে তাই। কারও কাছ থেকে বাহবা পাওয়ার জন্য লিখি না। কেউ আমার লেখা পছন্দ করলে খুশি হই তবে অপছন্দ করলেও লেখালেখি বন্ধ করার কোন অবকাশ নেই, কারন আমি একান্ত সখের বশেই লেখালেখি করি।
আমার ব্লগ সমুহ:

আপনার মতামত দিন


সিকিউরিটি কোড
রিফ্রেশ