alormelaকালেমা ইসলামের মৌলিক বিশ্বাস সম্বলিত কয়েকটি আরবি পংক্তির নাম। এর মাধ্যমেই ইসলামের প্রথম স্তম্ভ পূর্ণতা পায়। ইসলামে কালমিার গুরুত্ব ও মর্যাদা অনেক । কালিমার মূল অবকাঠামো হচ্ছে বিশ্বাস। রাসূল সাল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়া সাল্লাম বলেন : “যে ব্যক্তি এমতাবস্থায় মারা যায় যে সে জানে আল্লাহ ছাড়া কোন সঠিক উপাস্য নেই সে জান্নাতে যাবে।

 

কালিমা সমূহ:

 

১. কালিমায়ে তাইয়্যেবা : ‘লা ইলাহা ইল্লাল্লাহু মুহাম্মাদুর রাসূলুল্লাহ’

 

অর্থ : আল্লাহ ছাড়া কোন মা’বুদ নাই, মুহাম্মাদ (স.) আল্লাহর রাসুল।

 

২. কালিমায়ে শাহাদাত: ‘আশহাদু আন লা ইলাহা ইল্লাল্লাহু ওয়াহদাহু লা শারীকা লাহু ওয়াশহাদু আন্না মুহাম্মাদান আবদুহু ওয়ারাসুলূহু’

 

অর্থ: আমি সাক্ষ্য দিচ্ছি যে, আল্লাহ ছাড়া কোন ইলাহ নেই, তার কোন অংশীদার নেই। আমি আরও সাক্ষ্য দিচ্ছি যে, মুহাম্মাদ (স.) আল্লাহর প্রেরিত রাসুল।

 

৩. কালিমায়ে তাওহীদ: ‘লা ইলাহা ইল্লা আনতা ওয়াহিদাল লা ছানিয়ালাকা মুহাম্মাদুর রাসূলুল্লাহি ইমামুল মুত্তাক্বীনা রাসুলু রাব্বিল আলামীন।

 

অর্থ: তুমি (আল্লাহ) ছাড়া অন্য কোন উপাস্য নেই। তুমি এক, তোমার দ্বিতীয় কেহ নেই। আল্লাহর রাসুল (সা.) আল্লাহভীরুদের নেতা ও বিশ্বপ্রতিপালকের রাসূল।

 

৪. কালিমায়ে তামযীদ: “লা ইলাহা ইল্লা আনতা নূ- রাই ইহায়দিয়াল্লাহু লিনূরিহী মাই- ইয়াশাউ মুহাম্মাদুর রাসুলুল্লাহি ইমামুল মুরসালীনা ওয়া খাতামান নাবিয়্যীন।”

 

অর্থ: তুমি (আল্লাহ) ছাড়া অন্য কোন উপাস্য নেই। তুমি জ্যোতির্ময়, যাকে ইচ্ছা হয় তাকেই তোমার নূর দ্বারা পথ প্রদর্শণ কর। মুহাম্মাদ (সা.) আল্লাহর রাসুল, রাসুলগণের নেতা এবং নবীদের মধ্যে সর্বশেষ নবী।

 

৫. কালিমায়ে রদ্দে কুফর: আল্লাহুম্মাহ ইন্নী আউযুবিকা মিন্ আন্ উশ্রিকা বিকা শাইআওঁ ওয়া আনা আ’লামু বিহী, ওয়া আস্তাগ্ফিরুকা লিমা আ’লামু বিহী, ওয়ামা লা-আ’লামু বিহী, তুব্তু আন্হু ওয়া তাবাররা’তু মিনাল কুফরি ওয়াশ্ শিরকি ওয়াল মায়াছী কুল্লিহা, ওয়া আসলামতু ওয়া আমান্তু ওয়া আক্বুলু আল্লা ইলাহা ইল্লাল্লাহু মুহাম্মাদুর রাসুলুল্লাহি। 

 

অর্থ: হে আল্লাহ্! আমি তমার নিকট আকাঙ্ক্ষা করছি যে আমি যেন কাউকে তমার সাথে শরিক না করি। আমি আমার জ্ঞাত ও অজ্ঞাত পাপ হতে ক্ষমা প্রার্থনা করছি এবং তা হতে তোবা করছি। কুফরী, শিরক ও অন্যান্য সব পাপ হতে দূরে থাকছি। এবং স্বীকার করছি যে, “আল্লাহ এক আর কোন মাবুদ নেই। হযরত মুহাম্মদ (সঃ) আল্লাহর প্রেরিত রাসূল।” 

 

 

আরও আছে-

ঈমানে মুজমাল: “আ-মানতু বিল্লাহি কামা হুয়া বিআসমায়িহি ওয়া সিফাতিহি ওয়াকাবিলতু জামিয়া’ আহকা- মিহি ওয়া আরকানিহী’

অর্থ: আমি আল্লাহ তায়ালার প্রতি তাঁর সমুদয় নামের সহিত ও তাঁহার যাবতীয় গুণাবলীর সহিত ঈমান আনলাম। আর তাঁর যাবতীয় আদেশ ও বিধি-বিধান মেনে নিলাম।

 

ঈমান মুফাছছাল: “আ-মানতু বিল্লাহি ওয়ামালা- ইকাতিহী ওয়া কুতুবিহি ওয়া রুসুলিহি ওয়াল ইয়াওমিল আ-খিরি ওয়াল ক্বাদরি খায়রিহী ওয়া শাররিহী মিনাল্লা- হি তায়ালা ওয়াল বা’ছি বা’দাল মাওত।”

অর্থ : আমি বিশ্বাস করলাম আল্লাহর উপর, তাঁর ফিরিশতাগণের উপর, তাঁর আসমানী কিতাব সমূহের উপর, তাঁর রাসুলগণের উপর, পরকালের উপর এবং তাকদীরের ভাল- মন্দের উপর, যা আল্লাহ পাকের নিকট হতে হয়ে থাকে এবং মৃত্যুর পর পূনরায় জীবিত হওয়ার

লেখক পরিচিতি
এম, এইচ, মিনহাজ
আমি বিভিন্ন বাংলা/ইংরেজী ব্লগের একজন অনিয়মিত এবং সখের ব্লগার। তবে নিয়মিত লেখার ইচ্ছে থাকলেও অনিয়মিত ভাবেই পাঠকদের বিরক্ত করে থাকি। আমার লেখার বিষয়বস্তু- যা মনে আসে তাই। কারও কাছ থেকে বাহবা পাওয়ার জন্য লিখি না। কেউ আমার লেখা পছন্দ করলে খুশি হই তবে অপছন্দ করলেও লেখালেখি বন্ধ করার কোন অবকাশ নেই, কারন আমি একান্ত সখের বশেই লেখালেখি করি।
আমার ব্লগ সমুহ:

মন্তব্যসমুহ  

মো সাব্বির হোসেন
-1 # মো সাব্বির হোসেন 2016-05-06 15:14
Vai, shobgulo kalema er reference ba dolil Jodi diten khub upokrito hotam !
প্রতিউত্তর
এম, এইচ, মিনহাজ
0 # এম, এইচ, মিনহাজ 2016-05-11 20:32
কমেন্টের জন্য ধন্য। আপনি পরিচিত কোন হুজুর বা আপনার মসজিদের ইমাম অথবা কোন মুফতিকে জিজ্ঞেস করতে পারেন, তারা সুত্রসহ ভালভাবে ব্যাখ্যা করে আপনাকে বলতে পারবেন।
প্রতিউত্তর

আপনার মতামত দিন


সিকিউরিটি কোড
রিফ্রেশ